আল্লাহর আজাব।

.
কবিতার ফেরিওয়ালা মুসাফির
.
গজব নাজিল হওয়ার কারণঃ
মানুষ যখন ব্যাপকভাবে আল্লাহর আদেশ নিষেধ অমান্য করতে থাকে, তখন আল্লাহ অসন্তুষ্ট হয়ে তাদেরকে শাস্তি দিতে বাধ্য হন। আল্লাহ অতিশয় দয়ালু ও মেহেরবান। তাই তিনি কোনো পাপের তাত্ক্ষণিক শাস্তি প্রয়োগ করেন না। তিনি মানুষকে বারবার সুযোগ দেন। কিন্তু মানুষ যখন পাপ করতে করতে সীমা ছাড়িয়ে যায়, তখনই গজব হিসেবে আল্লাহর শাস্তি নাজিল হয়। ফিরাউন, নমরুদ, আদ, সামুদ, বনী ইসরাইল প্রভৃতি জাতিকে আল্লাহ তাআলা তখনই শাস্তি দিয়েছেন, যখন তারা আল্লাহর অবাধ্য হয়ে সীমাহীন পাপাচারে লিপ্ত হয়েছিলো।
.
হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন- যখন সরকারি মালকে নিজের মাল মনে করা হয়, আমানতের মালকে নিজের মালের মতো ব্যবহার করা হয়, যাকাতকে জরিমানা মনে করা হয়, ইসলামী আকিদা বর্জিত বিদ্যা শিক্ষা করা হয়, পুরুষ স্ত্রীর অনুগত হয়, মায়ের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়, বন্ধুদের আপন মনে করা হয়, বাবাকে পর ভাবা হয়, মসজিদে শোরগোল করা হয়, পাপী লোকেরা গোত্রের নেতা হয়, অসৎ ও নিকৃষ্ট লোক জাতির চালক হয়, ক্ষতির ভয়ে কোনো লোককে সম্মান করা হয়, গায়িকা ও বাদ্যযন্ত্রের ব্যাপক প্রচলন হয়, মদ্য পানের আধিক্য ঘটে, পরবর্তী সময়ের লোকেরা পূর্ববর্তী লোকদের বদনাম করে, তখন যেনো তারা অপেক্ষা করে লু’ হাওয়া, ভূমিকম্প, ভূমিধস, মানব আকৃতির বিকৃতি, শিলাবৃষ্টি, রক্তবৃষ্টি ইত্যাদি কঠিন আজাবের, যা একটার পর আরেকটা আসতে থাকবে, যেমন পুতির মালার সুতা ছিঁড়ে গেলে দানাগুলো একটার পর একটা পড়তে থাকে। (তিরমিজি)।
এই হাদিসের প্রতিটি বিষয় এখন বাস্তবে রূপ নিয়েছে।
.
কোনো সম্প্রদায়ের মধ্যে যদি জেনা ব্যভিচার ছড়িয়ে পড়ে, তাহলে তাদের মধ্যে এমন এমন রোগ দেখা দেবে, যা আগে কখনো ছিলো না।
.
গজবের সময় করণীয়ঃ
১) আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়া।
২) অশ্লীলতা থেকে বিরত থাকা।
৩) আল্লাহর অবাধ্যতা না করা।
৪) পাপ ও অন্যায় কাজ পরিহার করা।
.
পৃথিবীর মানুষ ব্যাপক হারে আল্লাহ তাআলার অবাধ্য হলে আল্লাহ পাক পৃথিবীতে গজব নাজিল করেন, যাতে মানুষ তাদের ভুল বুঝতে পেরে তাওবার মাধ্যমে আবার ফিরে আসতে পারে।
তাওবা হলো-
“আস্তাগফিরুল্লাহা রাব্বী মিন কুল্লি যাম্বিওঁ ওআতুবু ইলাইহি, ওয়া লা-হাওলা ওয়ালা কুওয়্যাতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিয়্যিল আ’জিম।”
অর্থ: সকল প্রকার পাপ থেকে আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাই। আমি আল্লাহর দিকেই ফিরে আসছি, আল্লাহর সাহায্য ছাড়া গোনাহ থেকে বাঁচার ও নেক কাজ করার কোনোই শক্তি নাই।
.
আসুন, করোনা নামের এই গজব থেকে বাঁচতে আমরা সবাই মহান আল্লাহর দরবারে তাওবা করে নিজেকে শুধরে নেই, আল্লাহ যেনো আমাদের কে ক্ষমা করে দেন।
.
.

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s